সালাতুত তাসবীহ নামাজের নিয়ম

সালাতুত তাসবীহ নামাজের নিয়ম

সালাতুত্ তাসবীহ হলো, এক সালামে ৪ রাক’আত সালাত; যার মধ্যে মোট ৩০০ বার নিম্নের তাসবীহ পাঠ করতে হয়।

*তাসবীহ:*—-

*سُبحَانَ اللهِ وَالحَمدُ للهِ وَلَا اِلهَ اِلا اللهُ وَاللهُ اَكبَرُ.*

*বাংলা উচ্চারণ:-* সুব্হানাল্লাহি ওয়াল হামদু লিল্লাহি ওয়ালা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার।

*সালাতের মাঝে তাসবীহ পাঠের নিয়ম:চার রাক‘আতের প্রতি রাক‘আতে:*

*১.* সূরা ফাতিহা পড়ার পূর্বে (প্রথম রাক’য়াতে ছানা পড়ার পরে ১৫ বার।

*২.* সূরা ফাতিহা এবং অন্য সূরা পড়ার পরে রুকুতে যাওয়ার পূর্বে দাড়ানো অবস্থায় ১০ বার।

*৩.* রুকুর তাসবীহ শেষ করে রুকু অবস্থায় ১০ বার।

*৪.* রুকু থেকে দাঁড়িয়ে রব্বানা লাকাল্ হামদ বলার পরে হাত ছাড়া অবস্থায় ১০ বার।

*৫.* প্রথম সিজদার তাসবীহ শেষ করে সিজদারত অবস্থায় ১০ বার।

*৬.* প্রথম সিজদা থেকে উঠে বসে অর্থাৎ দুই সিজদার মাঝে বসা অবস্থায় ১০ বার।

*৭.* দ্বিতীয় সিজদার তাসবীহ শেষ করে সিজদারত অবস্থায় ১০ বার।

উক্ত নিয়মানুযায়ী মোট ৪ রাক‘আত সালাত আদায় করতে হবে। প্রতি রাক‘আতে উক্ত তাসবীহ ৭৫ বার করে মোট *(৭৫x৪ = ৩০০)* বার পাঠ করতে হবে।

প্রথম বৈঠকে তাশাহুদের সাথে দুরূদ শরীফ পাঠ করা উত্তম । এরপর আল্লাহু আকবার বলে দাড়িয়ে উক্ত নিয়মে বাকি ২ রাক‘আত সালাত শেষ করতে হবে।

*হাদীস শরীফের আলোকে সালাতুত্ তাসবীহ আদায়ের গুরুত্ব:*

পবিত্র হাদীস শরীফে রাসূলুল্লাহ্ *(সাল্লাল্লাহু আ’লাইহি ওয়া সাল্লাম)* এর আপন চাচা হযরত আব্বাস (রাযি:) কে এভাবেই প্রত্যেক দিনে একবার অথবা প্রত্যেক সপ্তাহে একবার অথবা প্রত্যেক মাসে একবার অথবা প্রত্যেক বছরে একবার অথবা জীবনে একবার হলেও অবশ্যই এই সালাত আদায় করার জন্য জোড়ালোভাবে নির্দেশ দিয়েছেন।

*সালাতুত তাসবীহ এর ফযীলত:*

রাসূলুল্লাহ্ *(সাল্লাল্লাহু আ’লাইহি ওয়া সাল্লাম)* বলেছেন, উক্ত নিয়মে ৪ রাকা’আত নামাজ আদায় করলে তাঁর জীবনের আগের-পরের, পুরাতন-নতুন, ইচ্ছাকৃত-অনিচ্ছাকৃত, ছগীরা-কবীরা, গোপন-প্রকাশ্য সকল গোনাহ আল্লাহ্ তা‘আলা মাফ করে দিবেন। *[সুনানুত তিরমিযী, আবু দাউদ, ইবনু মাজাহ, বায়হাক্বী শরীফ]*

এই মূল্যবান আমলটি আপনি করুন এবং অপর মুসলিম ভাই-বোনদেরকে আমল করার জন্য উৎসাহিত করুন।

আল্লাহ্ তা’আলা আমাদেরকে আমল করার ভরপূর তাওফীক দান করেন।আমীন..!