এক যুবকের দৃষ্টি নত করে কথা বলায় এক খৃষ্টান নার্সের ইসলাম গ্রহণ

এক যুবকের দৃষ্টি নত করে কথা বলায় এক খৃষ্টান নার্সের ইসলাম গ্রহণ

বাতিল বড় কমযোর। তাদের ধর্মের বুনিয়াদ বড় নড়বড়ে। সামান্য মেহনত করতে পারলে আর আখলাকের পরিচয় দিতে পারলে তাদের সব কিছু তাসের ঘরের মত হুড়মুড় করে ভেঙ্গে পড়বে।

মুলতানের তাবলীগের এক সাথি গ্লাসগােয় থাকে। সেখানে সে লেখা-পড়ার জন্য গিয়েছিল। একবার অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হল । কিন্তু সেখানেও তার তাবলীগী মিশন জারি ছিল। হাসপাতালের এক নার্স তৃতীয় দিন এসে বলল, তুমি আমাকে বিবাহ কর। যুবক বলল, সেটা কিভাবে সম্ভব? তুমি খৃষ্টান আর আমি মুসলমান। সে বলল, তুমি বললে আমি মুসলমান হতে রাজি আছি। যুবক বলল, আমার সাথে বিবাহ বসতে হলে মুসলমান হয়ে তােমাকে এই চাকরীও ছেড়ে দিতে হবে। সে বলল, তাতেও আমি রাজি। যুবক বলল, আচ্ছা এর কারণটা কি? তখন নার্স বলল, আমি বেশ কয়েক বছর যাবত এই হাসপাতালে আছি। আজ পর্যন্ত কোন যুবককে দৃষ্টি নীচু করে কথা বলতে দেখি নি। আমার জীবনে এই প্রথম তােমাকে দেখলাম, যে কিনা মহিলাদেরকে দেখে দৃষ্টি নামিয়ে নেয়। যে ধর্ম এরকম পবিত্রতা আর লজ্জাশীলতা শিক্ষা দেয় সেই ধর্ম কতই না সুন্দর। তাই তা মুসলমান হয়ে তােমাকে বিবাহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি ।

আরো এক যুবকের সুন্নতী লেবাসে মুগ্ধ হয়ে আমেরিকান তরুণীর ইসলাম গ্রহণের কারগুজারি


ফাযেল নাবীস এক আরব-আমেরিকান নওজোয়ান। ক্যালিফোর্নিয়ায় সে লেখা-পড়া করত। একদিন রাস্তায় দাঁড়িয়েছিল তার পরনে ছিল জামা আর মাথায় ছিল পাগড়ী। এমন সময় এক তরুণী তার সামনে এ দাঁড়াল এবং জিজ্ঞাসা করল, তুমি কে? সে বলল, আমি মুসলমান । তরুণী বলল, তােমার পােশাকে খুব আকর্ষণ রয়েছে। কেমন পােশাক এটি, ছেলেটি বলল, এটা আমাদের নবীর লেবাস।

তরুণী বলল, অন্য মুসলমানকে তাে এই পােশাক পরতে দেখি না? ছেলেটি বলল, এটা তাদের ভুল যে, তারা এটা পরিধান করে না। তরুণী তখন ইসলাম সম্পর্কে জানতে চাইলে আরব যুবক তাকে পাঁচ মিনিট ইসলাম সম্পর্কে বলল। এতে সে সাথে সাথে মুসলমান হয়ে গেল । দুই মাস পরের কথা, একদিন এই যুবক স্বীয় কামরায় সাথিদের সাথে। পরামর্শ করছিল গাশত ইত্যাদির ব্যাপারে। এমন সময় এক মহিলার ফোন এল। বলল, আমি ফাযেল নামক ছেলের সাথে কথা বলতে চাই। যুবক বলল, আমিই ফাযেল, বলুন কি বলতে চান। উক্ত মহিলা তখন অকথ্য ভাষায় তাকে গালাগালি করতে লাগল । ফাযেল বলল, কি ব্যাপার, আমি তাে কিছু বুঝতে পারছি না। আপনি এভাবে গালিগালাজ করছেন কেন? তখন সে বলল, আমার এক বান্ধবী ছিল। তাকে তুমি বিগড়ে দিয়েছ, তার মাথা নষ্ট করে দিয়েছ। সে এখন সারাদিন ঘরের মধ্যেই বসে থাকে। বাইরে কোথাও বের হয় না। ইসলাম এমন জালেম ধর্ম যা নারীদেরকে চার দেয়ালের ভেতর বন্দী করে রেখেছে।

ফাযেল বলল, আপনি যদি ইসলাম সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আপনাকে সময় দিতে পারি। কিন্তু লড়াই করতে চাইলে আমার নিকট সময় নেই । মহিলা বলল, হাঁ আমি বুঝতে চাই । ফাযেল বলল, ঠিক আছে তাহলে দুই ঘন্টা পরে ফোন করুন। ঠিক দুই ঘন্টা পর উক্ত মহিলার ফোন এল। ফাযেল তাকে ফোনেই ইসলামের দাওয়াত দিল । ইসলামের সৌন্দর্য তুলে। ধরল, ব্যস মহিলা তৎক্ষণাত মুসলমান হয়ে গেল। এভাবেই ইসলামের দাওয়াত সারা আমেরিকায় ছড়িয়ে পড়ছে আর পথহারা মানুষ দলে দলে। মুসলমান হচ্ছে।